হাটিকুমরুলে সি আই জি প্রকল্পের জাল বিক্রির অভিযোগ প্রকল্প লিভ রেজার বিরুদ্ধে।

 

সলঙ্গা প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জ‌ের উল্লাপাড়া উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তরের সি আই জি প্রকল্পের জাল বিক্রি সহ নানান অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে হাটিকুমরুল প্রকল্প লিভ রেজাউল করিম রেজার বিরুদ্ধে ।
জানাযায় , সলঙ্গা থানার হাটিকুমরুল ইউনিয়নের হাটিপাড়া গ্রামের মৃত মেনহাজ মন্ডল এর ছেলে হাটিকুমরুল ইউনিয়নের সি এ জি প্রকল্পে নিয়োগকৃত প্রকল্প লিভ রেজাউল করিম রেজা হাটিকুমরুল রাধানগর সি আই জি প্রকল্পের জাল চুরি করে বিক্রি করে স্থানীয় মৃত বুদ্ধ শেখের ছেলে নায়েব আলীর কাছে ।উক্ত সি এ জি সমিতির সভাপতি আব্দুল মান্নান ও‌ সেক্রেটারি মজনু আলম সহ কয়েকজন সদস্য খবর পেয়ে 11/10/30 ইং সকালে হাটিকুমরুলের হাটিপাড়া গ্রামের নায়েব আলীর কাছ থেকে জালটি উদ্ধার করে । পরে স্থানীয় ওয়ার্ড আওমীলিগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম হোসেন এর জিম্মায় রেখে দেন ।
জাল ক্রেতা নায়েব আলী জানান , তার পুকুরে মাছ ধরার জন্য জাল প্রয়োজন হলে তিনি রেজাকে জানান , রেজা তার কাছ থেকে আট হাজার দুশো টাকা নিয়ে জাল এনে দেন । এটা মৎস্য প্রকল্পের জাল কিনা তা তিনি জানেন না ।
রাধানগর সি আই জি মৎস্য সমবায় সমিতির সভাপতি আব্দুল মান্নান জানান, রেজা দীর্ঘদিন ধরে উপজেলা থেকে বরাদ্দ কৃত প্রকল্পের বিভিন্ন উপকরন চুরি করে বিক্রি করে আসছে । আজ প্রকল্পের জাল বিক্রির সময় আমরা জাল উদ্ধার করি । উপজেলা মৎস্য অফিস থেকে নিয়োগ কৃত সি আই জি প্রকল্পের লিভ এই রেজা ,উপজেলা মৎস্য অফিস হতে প্রান্তিক চাষীদের জন্য সুযোগ সুবিধা ও উপকরন আসলে আমরা কোন সুযোগ সুবিধা পাইনা । দীর্ঘদিন ধরে প্রকল্পে নয়ছয় করে আসছে । আমরা জাল বিক্রির বিষয় টি তাৎক্ষণিক উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা কে জানিয়েছি ।
রাধানগর সি এ জি মৎস্য সমবায় সমিতির সেক্রেটারি মজনু আলম জানান , উপজেলা হতে বরাদ্দ কৃত জাল সি এ জি প্রকল্প লিভ রেজার গোপনে বিক্রি কথা শুনে জালটি নায়েব আলীর কাছ থেকে উদ্ধার করে ওয়ার্ড আওমীলিগের সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন এর কাছে জিম্মায় দিয়েছে ও‌ তাৎক্ষণিক মৎস্য কর্মকর্তা কে অবহিত করেছি , এই রেজা প্রকল্প লিভ হওয়ার বিভিন্ন সময় অনিয়ম করে আসছে এতে আমরা যারা প্রান্তিক ক্ষুদ্র চাষী তারা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছি তাছাড়া প্রায় 10-12 জনের কাছ থেকে সমিতির সদস্য বানানোর কথা বলে 5 হাজার করে টাকা নিয়েছে বলেও‌ অভিযোগ রয়েছে রেজার বিরুদ্ধে ।
ওপর ভুক্তভোগী সেরাজুল ইসলাম জানান, রেজা দের বছর আগে সি আই জি সমিতির সদস্য বানানোর কথা বলে আমার কাছ থেকে পাঁচ হাজার টাকা নেয় ।
আজ পর্যন্ত আমাকে সদস্য বানায়নি টাকাও ফেরত দেয়নি । টাকা ফেরত চাইতে গেলে বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি প্রদর্শন করে ।
এছাড়াও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই বলেন রেজা মৎস্য অফিসের নাম‌ ভাঙ্গিয়ে সিরাজগঞ্জ‌ রোড মৎস্য আড়ৎ এ‌ দীর্ঘদিন যাবৎ চাঁদাবাজি করে আসছে ।
এ বিষয়ে রেজার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন আপনারা লিখেন আমি যা পারি তাই করবো ।
এ বিষয়ে উল্লাপাড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা বায়োজিদ আলম‌ বলেন রেজা কে উপজেলা মৎস্য অফিস হতে সি আই জি প্রকল্পের প্রজেক্ট লিভের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ।জাল বিক্রির বিষয়টি মৌখিক ভাবে শুনেছি , যদি প্রকল্পের জাল বিক্রি করে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করব ।

পুরাতন বার্তা…

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
© All rights reserved | Jamunar Barta

Desing & Developed BY লিমন কবির