মিথ্যা মামলা দিয়ে ইউপি সদস্যকে ফাসানোর চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার সলঙ্গা থানার হাটিকুমরুল ইউনিয়ানের ৮ নং ওর্য়াড এর ইউপি সদস্য মোহাব্বত আলী শামীমকে মিথ্যা চাঁদাবাজী মামলা দিয়ে ফাসানোর চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার হাটিকুমরুল ইউনিয়ানের রশিদপুর গ্রামের মাঙ্গন ভুইয়ার ছেলে শাহাদৎ হোসেন নান্নু (৪০) ইউপি সদস্য মো: মোহাব্বত আলি শামিম রেজা সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে সলঙ্গা থানায় একটি মিথ্যা চাঁদাবাজির অভিযোগ দায়ের করেছে ।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, সলঙ্গা থানার রশিদপুর মধ্য পাড়া গ্রামের মৃত রমজান আলীর ছেলে আব্দুর রাজ্জাক ভূইয়া একই গ্রামের মন্তাজ আলী শেখের ছেলে আবুল কালাম ও আব্দুস সালামের কাছ থেকে প্রায় দেড় বছর আগে রশিদপুর মৌজার ১৩ শতক জমি বিক্রির কথা বলে ৬ লাখ ৭৭ হাজার টাকা নেয় । কিন্তু উক্ত ওই জমি আবুল কালাম ও আব্দুস সালামকে ভোগ দখল ও চাষ আবাদের জন্য ছেড়ে দেয় । কিন্তু জমিটি রেজিস্ট্রি করে পরে দিবে বলে টাকা নেন।

আবুল কালাম বলেন , আব্দুর রাজ্জাক ভূইয়া কাগজ পত্রের জটিলতা দেখিয়ে জমি দলিল রেজিস্ট্রি করতে সময় কালক্ষেপন করতে থাকে । গত রবিবার (১৭ জানুয়ারী) জমিতে হাল চাষের জন্য গেলে শাহাদৎ হোসেন নান্নু জমি আমার বলে বাধা দেয়। এবং জমি ক্রয়ের দলিল আদি উপস্থাপন করলে আমরা মিমাংশার লক্ষে হাল চাষ বন্দ করে দেই । এবং শাহাদৎ হোসেন বলে আব্দুর রাজ্জাক আমাদের কাছে জমিটি বিক্রি করে দিয়েছে।

বিষয়টি হাটিকুমরুল ইউনিয় পরিষদের চেয়ারম্যান হেদায়াতুল আলমকে অবগত করি। হঠাৎ মঙ্গলবার দুপুরে জানতে পারি শাহাদৎ হোসেন নান্নু সলঙ্গা থানায় চাঁদাবাজির অভিযোগ দাখিল করেছে।

ইউপি সদস্য মোহাব্বত আলী শামিম রেজা জানান , আব্দুস সালাম ও আবুল কালামের কাছ থেকে আব্দুর রাজ্জাক ভুইয়া প্রায় দেড় বছর আগে ১৩ শতক জায়গা বিক্রির কথা বলে ৬ লাক্ষ ৭৭ টাকা নেয় পরবর্তিতে আব্দুর রাজ্জাক ভূইয়া জমি শাহাদৎ হোসেন নান্নুকে দলিল করে দেয় বিষয় টি নিয়ে বেশ কয়েক বার এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তি বর্গ নিয়ে বৈঠক করলেও কোন সমাধান মেলেনি । তবে কি কারনে শাহাদৎ হোসেন নান্নু আমাকে জরিয়ে থানায় মিথ্যা অভিযোগ করেছে বিষয়টা আমি সুস্পষ্ট নয়। আমাকে রাজনৈতিক ভাবে হেও প্রতিপন্ন করার উদ্দেশ্যে একটি কুচক্রী মহলের ইন্দনে এমন মিথ্যা বানোয়াট অভিযোগ করেছে। আমি এই মিথ্যা বানোয়াট অভিযেগের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই সেই সাথে সলঙ্গা থানার কর্মরত পুলিশ অফিসার দের সঠিক তদন্ত অনুরোধ জানাছি ।

বিষয়টি নিয়ে হাটিকুমরুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হেদায়তুল আলম রেজার সাথে মুঠোফোনে বার বার চেষ্টা করা হলে তার মুঠোফোন টি বন্ধ পাওয়া যায়।

সলঙ্গা থানার ভারপাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাদের জিলানি বলেন, রশিদপুর গ্রামের শাহাদৎ হোসেন নান্নু নামের এক ব্যক্তি থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছে। তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

পুরাতন বার্তা…

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
© All rights reserved | Jamunar Barta

Desing & Developed BY লিমন কবির