শিরোনামঃ
বিশ্বের যেকোনও প্রান্ত থেকে অ্যাপে দেখা যাবে বিটিভি: তথ্যমন্ত্রী ভারত থেকে আরও তিন স্থলবন্দর দিয়ে দেশে ফেরার সুযোগ বাংলাদেশের সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রতি আমরা শ্রদ্ধাশীল, কোয়াড প্রসঙ্গ ‘দেশে টিকাগ্রহীতাদের দেহে ৯৭ শতাংশ পর্যন্ত অ্যান্টিবডি’ বাংলাদেশ থেকে ৬০০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ নিচ্ছে সৌদি আরব ঈদে চালু থাকবে সরকারি হাসপাতাল নন এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের ৭৫ কোটি টাকা সহায়তা প্রধানমন্ত্রীর আল-আকসা মসজিদে হামলার নিন্দা প্রধানমন্ত্রীর ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রবাসে ও দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রসায়নবিদ আলহাজ্ব ড. জাফর ইকবাল ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেশবাসী ও প্রবাসে বসবাসরত সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মোঃ ইলিয়াস মাদবর

হাটিকুমরুলে রাত বাড়লেই বাড়ে ভ্রাম্যমাণ পতিতা বাড়ে বাসাবাড়িতে অসামাজিক কার্যকলাপ ।

কাইয়ুম মাহমুূদ

উত্তর বঙ্গের প্রবেশদ্বার সলঙ্গা থানার হাটিকুমরুল গোলচত্বর । রাত বাড়লেই বাড়ে মানুষের অনাগোনা বাড়ে অসামাজিক কার্যকলাপ ।

গোলচত্বরে রাত গভীর হলে পন্যবাহী ট্রাকের ড্রাইভার হেলপাড় থেকে শুরু করে মৎস্য আড়তের লোকজন ভির করতে থাকে ।এই সুযোগে এক শ্রেণীর অসাধু চা বিক্রেতা , ভ্যানচালক ও বাসাবাড়িওয়ালাদের যোগসাজশে ভ্রাম্যমাণ পতিতা ও দেহব্যবসায়ীরাদের রাতভর চলতে থাকে অসামাজিক কার্যকলাপ ।

সিয়াম সাধনার মাস রমজানেও থেমে নেই এ সব দালাল আর পতিতাদের দৌড়াত্ব । উল্লাপাড়া বাসস্ট্যান্ড এর মধ্যে অন্যতম ‌ রাত বাড়লেই ভ্রাম্যমাণ পতিতাদের ভিড় জমতে থাকে চায়ের দোকানগুলোতে। রাত বাড়লেই প্রায় দোকানগুলোতেই দেহব্যবসায়ীদের দেখা মেলে । প্রসাশনের নাকের ঢগায় এমন কর্মকাণ্ডে এলাকাবাসীর মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে ।
সিরাজগঞ্জ‌ের সলঙ্গা থানার হাটিকুমরুল ইউনিয়নের চড়িয়া শিকার উত্তর পাড়া গ্রামের বাদুল্লাহ শেখের ছেলে উল্লাপাড়া রোডের চা দোকানী মোঃ হায়দার আলী ( ৫০) দেহব্যবসায়ীদের নেপথ্যে থাকা দালালদের মধ্যে অন্যতম । জানাযায় , হায়দার আলী তার উল্লাপাড়া রোডস্থ্য চড়িয়া শিকার উত্তর পাড়া মৎস্য আড়ৎ এর পুর্বপাশের নতুন বাড়িতে দীর্ঘদিন ধরে ভ্রাম্যমাণ পতিতাদের দিয়ে দেহব্যবসা চালিয়ে আসছে । এর এ কাজে সহযোগিতা করে আসছে চরিয়া শিকার আকন্দ পাড়া গ্রামের জুরান আকন্দ ( হোটকার ) ছেলে ভ্যানচালক হযরত আলী ( ৪০) ।

হায়দার আলীর নতুন বাড়িতে সাপুরে সাথী , মনিষা, আদুরী ও মিস্টি কে দিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ ব্যবসা চালিয়ে আসছে । বাসার বাহিরে ১৫০০ থেকে ২০০০ টাকার চুক্তিতে বিভিন্ন জায়গায় দেহব্যবসায়ীদের সাপ্লায়ার্স হিসেবে কাজ করে হযরত এবং বাসার ভিতরে খদ্দের আনানেয়ার কাজ করে মনিষার কথিত স্বামী হরিনচড়া বাদেকুষা গ্রামের ইউছুফ আলী আকন্দের ছেলে আব্দুল আজিজ আকন্দ ।
গত বুধবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় , হায়দারের বাসা বাড়িতে দুই খদ্দের সহ চার পতিতা ও দালাল আজিজ আকন্দ কে ।

দুই খদ্দের রানা ও মনিরুল জানায় , দালাল আব্দুল আজিজের সাথে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে দুজন ছয়শত টাকার চুক্তিতে বাসায় এসেছে ।
এ বিষয়ে যৌনকর্মী আদুরী ও মিষ্টি জানায় , কয়েক সপ্তাহ আগে হযরতের মাধ্যমে দিয়ে টাঙ্গাইল থেকে তারা এ বাসায় এসেছে ।
কিছু জানার থাকলে হায়দার আর হযরতের কাছে গিয়ে জানতে পারেন।
এ বিষয়ে হযরতের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রতিবেদককে জানান , আমি ধান কাটার জন্য তারাশ এসেছি আপনাদের নিউজ করতে হবে না আমি গিয়ে আপনাদের যা করারা করব ।
এ বিষয়ে চা দোকানী দেহব্যবসায়ীদের নেপথ্যে নেতা হায়দার আলী জানান, আমার বাসা আমি কাকে ভাড়া দিব আর সেখানে আমি কি করব সেটা আমার ব্যাপার । আপনারা লিখে আমার কিছু ই করতে পারবেন না । কিন্তু আমি চাইলে অনেক কিছু করতে পাড়ি ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকাবাসী অনেকেই বলেন চা বিক্রেতা হায়দার নতুন বাড়ি করার পর থেকেই বিভিন্ন মহিলা দিয়ে তার বাসায় দেহব্যবসা চালিয়ে আসছে ও এলাকার পরিবেশ নস্ট করছে এলাকার উঠতি বয়সী ছেলেরা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে । হায়দার এর বাজে স্বভাব ও‌ তার স্ত্রী ঝগড়াটে হওয়ার কারনে এলাকাবাসী চুপচাপ থাকে । এ ছাড়াও রোডের আশেপাশে মকবেলের বাড়ি , শরিফুলের বাড়ি , এরিস্টোকেট হোটেলের পাশে কানার বাড়ি দেহব্যবসায়ীদের ভাড়া দিয়ে থাকে ।

এভাবে চলতে থাকলে যুবসমাজ ধংস্বের দিকে যাবে ও কিশোর অপরাধ বেড়ে যাবে । এলাকার সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে । এলাকাবাসী ও সচেতন মহলের দাবি হায়দার সহ এর সাথে জড়িত দের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে । এবং সেই সাথে প্রসাশনের সুদৃষ্টি আশা করেন তারা।

এ ব্যাপারে সলঙ্গা থানার কর্মকর্তা ( ওসি তদন্ত ) হুমায়ন কবির বলেন, অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে ।

পুরাতন বার্তা…

শুক্র শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
© All rights reserved | Jamunar Barta

Desing & Developed BY লিমন কবির